Categories

সুতি কাপড় চেনার উপায়_______

____ঋতু ভেদে পোশাক নির্বাচনের জন্য কাপড় চেনা অন্তত প্রয়োজন।গরমে আরামদায়ক পোশাক হিসেবে সুতির বিকল্প আর কিছু হতেই পারে না।বাজারে সুতির নানা মিশ্র উপাদানের কাপড় পাওয়া যায়। তবে খাঁটি সুতি কাপরের কিছু বৈশিষ্ট্য আছে যে ধারনা আমাদের সকলের থাকা উচিত।
সুতি কেবলমাত্র হাত দিয়ে স্পর্শ করলে চেনা যায়।খাঁটি সুতি কাপড় অনেক হালকা ও পাতলা হয়ে থাকে।স্বাভাবিক ভাবেই এর উজ্জ্বলতা কম।সুতি কাপড়কে মোচড়ানো হলে কুঁচকে যায় আবার একটু টানটান করে ধরলে ঠিক হয়ে যায়।
হাত দিয়ে স্পর্শ ছাড়াও কিছু সাধারণ পরীক্ষার মাধ্যমে সুতি ও লিনেন কাপড় চেনা যায়।
সুতার পাক দেখে:
একটি সুতা পাক খুলে দুই ভাগ করে তা ভালোভাবে খেয়াল করতে হবে। সুতি হলে ছেঁড়া অংশের সামনের অংশ দেখতে তুলির মতো লাগবে।
ভাঁজ করে রেখে:
সুতি কাপড় ভাঁজ করে রাখলে ভাঁজের দাগ পড়ে তবে ক্ষণস্থায়ী।
উজ্জ্বলতা:
সুতির সামনের অংশ তুলির মতো ও অনুজ্জ্বল।
পোড়ানো:
সুতি কাপড় খানিকটা পুড়িয়ে নিয়ে আগুনের শিখা ও ছাই দেখে যাচাই করা যায়। সুতি কাপড় আগুনে বড় হলুদ শিখাসহ জ্বলবে ও তাড়াতাড়ি পুড়বে। এই কাপড় পোড়ানো হলে কাপড় পোড়া গন্ধ বের হবে এবং হালকা ছাই হবে। তবে মারসেরাইজড সুতি কাপড়ে কালো রংয়ের ছাই হয়।
কাপড় ভিজিয়ে:
হাতের এক আঙ্গুল সামান্য ভিজিয়ে সুতি কাপড়ও পানি দ্রুত শোষণ করে এবং দ্রুত শুকিয়ে যায়।
রাসায়নিক দ্রবণ:
কস্টিক সোডার দ্রবণে সুতি কাপড় ভেজানো হলে সুতি কাপড় সাদাই থাকে।
আয়োডিন ও জিঙ্ক ক্লোরাইডের দ্রবণে সুতি কাপড় কম নীল বর্ণের হয়।
ইনেসপায়ার্ড বাই বিডি নিউজ ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published.