Zubayer Saleheen young Entrepreneur

Started E-commerce with garments products

his business using a small amount of his savings

Since then, he has let sales organically grow as he adjusted the product based on customer feedback. Zibayer has only run two paid marketing tests for a total of $1,700 that brought in just under 10x

Since the successful campaign (raising $16,428 CAD, $6,428 more than the $10,000 CAD goal), sales doubled organically year over year, and to-date,he has made a total lifetime revenue of over $175,000.

Quick stats:

  • Product: T-shirt
  • Founded: 2018
  • Location: Gopalganj Bangladesh
  • Lifetime revenue: $175,000+
  • Founders: 1
  • Employees: 5

সুতি কাপড় চেনার উপায়_______

____ঋতু ভেদে পোশাক নির্বাচনের জন্য কাপড় চেনা অন্তত প্রয়োজন।গরমে আরামদায়ক পোশাক হিসেবে সুতির বিকল্প আর কিছু হতেই পারে না।বাজারে সুতির নানা মিশ্র উপাদানের কাপড় পাওয়া যায়। তবে খাঁটি সুতি কাপরের কিছু বৈশিষ্ট্য আছে যে ধারনা আমাদের সকলের থাকা উচিত।
সুতি কেবলমাত্র হাত দিয়ে স্পর্শ করলে চেনা যায়।খাঁটি সুতি কাপড় অনেক হালকা ও পাতলা হয়ে থাকে।স্বাভাবিক ভাবেই এর উজ্জ্বলতা কম।সুতি কাপড়কে মোচড়ানো হলে কুঁচকে যায় আবার একটু টানটান করে ধরলে ঠিক হয়ে যায়।
হাত দিয়ে স্পর্শ ছাড়াও কিছু সাধারণ পরীক্ষার মাধ্যমে সুতি ও লিনেন কাপড় চেনা যায়।
সুতার পাক দেখে:
একটি সুতা পাক খুলে দুই ভাগ করে তা ভালোভাবে খেয়াল করতে হবে। সুতি হলে ছেঁড়া অংশের সামনের অংশ দেখতে তুলির মতো লাগবে।
ভাঁজ করে রেখে:
সুতি কাপড় ভাঁজ করে রাখলে ভাঁজের দাগ পড়ে তবে ক্ষণস্থায়ী।
উজ্জ্বলতা:
সুতির সামনের অংশ তুলির মতো ও অনুজ্জ্বল।
পোড়ানো:
সুতি কাপড় খানিকটা পুড়িয়ে নিয়ে আগুনের শিখা ও ছাই দেখে যাচাই করা যায়। সুতি কাপড় আগুনে বড় হলুদ শিখাসহ জ্বলবে ও তাড়াতাড়ি পুড়বে। এই কাপড় পোড়ানো হলে কাপড় পোড়া গন্ধ বের হবে এবং হালকা ছাই হবে। তবে মারসেরাইজড সুতি কাপড়ে কালো রংয়ের ছাই হয়।
কাপড় ভিজিয়ে:
হাতের এক আঙ্গুল সামান্য ভিজিয়ে সুতি কাপড়ও পানি দ্রুত শোষণ করে এবং দ্রুত শুকিয়ে যায়।
রাসায়নিক দ্রবণ:
কস্টিক সোডার দ্রবণে সুতি কাপড় ভেজানো হলে সুতি কাপড় সাদাই থাকে।
আয়োডিন ও জিঙ্ক ক্লোরাইডের দ্রবণে সুতি কাপড় কম নীল বর্ণের হয়।
ইনেসপায়ার্ড বাই বিডি নিউজ ২৪.কম

Protect yourself and others from COVID-19

Protect yourself and others from COVID-19

If COVID-19 is spreading in your community, stay safe by taking some simple precautions, such as physical distancing, wearing a mask, keeping rooms well ventilated, avoiding crowds, cleaning your hands, and coughing into a bent elbow or tissue. Check local advice where you live and work. Do it all!

What to do to keep yourself and others safe from COVID-19

  • Maintain at least a 1-metre distance between yourself and others to reduce your risk of infection when they cough, sneeze or speak. Maintain an even greater distance between yourself and others when indoors. The further away, the better.
  • Make wearing a mask a normal part of being around other people. The appropriate use, storage and cleaning or disposal are essential to make masks as effective as possible.

Here are the basics of how to wear a mask:

  • Clean your hands before you put your mask on, as well as before and after you take it off, and after you touch it at any time.
  • Make sure it covers both your nose, mouth and chin.
  • When you take off a mask, store it in a clean plastic bag, and every day either wash it if it’s a fabric mask, or dispose of a medical mask in a trash bin.
  • Don’t use masks with valves.
  • For specifics on what type of mask to wear and when, read our Q&A and watch our  videos. There is also a Q&A focused on masks and children.
  • Find out more about the science of how COVID-19 infects people and our bodies react by watching or reading this interview.
  • For specific advice for decision makers, see WHO’s technical guidance.

How to make your environment safer

  • Avoid the 3Cs: spaces that are closed, crowded or involve close contact.
    • Outbreaks have been reported in restaurants, choir practices, fitness classes, nightclubs, offices and places of worship where people have gathered, often in crowded indoor settings where they talk loudly, shout, breathe heavily or sing.
    • The risks of getting COVID-19 are higher in crowded and inadequately ventilated spaces where infected people spend long periods of time together in close proximity. These environments are where the virus appears to spreads by respiratory droplets or aerosols more efficiently, so taking precautions is even more important.
  • Meet people outside. Outdoor gatherings are safer than indoor ones, particularly if indoor spaces are small and without outdoor air coming in.
    • For more information on how to hold events like family gatherings, children’s football games and family occasions, read our Q&A on small public gatherings.
  • Avoid crowded or indoor settings but if you can’t, then take precautions:

Don’t forget the basics of good hygiene

  • Regularly and thoroughly clean your hands with an alcohol-based hand rub or wash them with soap and water. This eliminates germs including viruses that may be on your hands.
  • Avoid touching your eyes, nose and mouth. Hands touch many surfaces and can pick up viruses. Once contaminated, hands can transfer the virus to your eyes, nose or mouth. From there, the virus can enter your body and infect you.
  • Cover your mouth and nose with your bent elbow or tissue when you cough or sneeze. Then dispose of the used tissue immediately into a closed bin and wash your hands. By following good ‘respiratory hygiene’, you protect the people around you from viruses, which cause colds, flu and COVID-19.
  • Clean and disinfect surfaces frequently especially those which are regularly touched, such asdoor handles, faucets and phone screens.

What to do if you feel unwell

  • Know the full range of symptoms of COVID-19. The most common symptoms of COVID-19 are fever, dry cough, and tiredness. Other symptoms that are less common and may affect some patients include loss of taste or smell, aches, and pains, headache, sore throat, nasal congestion, red eyes, diarrhea, or a skin rash.
  • Stay home and self-isolate even if you have minor symptoms such as cough, headache, mild fever until you recover. Call your health care provider or hotline for advice. Have someone bring you supplies. If you need to leave your house or have someone near you, wear a medical mask to avoid infecting others.
  • If you have a fever, cough, and difficulty breathing, seek medical attention immediately. Call by telephone first, if you can and follow the directions of your local health authority.
  • Keep up to date on the latest information from trusted sources, such as WHO or your local and national health authorities. Local and national authorities and public health units are best placed to advise on what people in your area should be doing to protect themselves.

তামার উপকারিতা

তামার উপকারিতাঃ পানির অপর নাম জীবন।

সারাদিনে সকলেই পানি পান করে থাকি। কিন্তু কোন পাত্রে পানি খাচ্ছি তা নিয়ে আমাদের অনেক সময়েই কোনও মাথাব্যথা থাকেনা। সিন্ধু সভ্যতার সময় থেকে আমাদের দেশে তামার ব্যবহার চলে আসছে। নিত্যদিনের প্রয়োজন মেটাতে তামার বাসন ব্যবহার হয়ে এসেছে যুগ যুগ ধরে। তামা, কাঁসা, পিতল, এই ধাতু বা ধাতুসংকরগুলো বরাবরই সমাজে দৈনন্দিন সাংসারিক ব্যবহারের অন্যতম উপকরণ ছিল।

তামা এমনই এক ধাতু যা আমদের শরীরের জন্য বন্ধুত্বপূর্ণ।তামার পাত্রে পানি রেখে আগেও পান করা হত।সভ্যতার রদবদলে আসে আরও অন্যান্য ধাতু ও প্লাস্টিক।

১.তামার পাত্রে রাখা পানিতে থাকে ন্যাচারাল অ্যান্টি অক্সিডান্ট যা আমদের শরীরের ৩টি দশার ভারসাম্য বজায় রাখে। ‘কপা’, ‘ভাতা’ ও ‘পিত্ত’, যাকে অনেকেই বাংলায় ‘বায়ু, পিত্ত ও কফ’ বলে থাকেন। এই ৩টির সঠিক ক্রিয়াকলাপে সাহায্য করে অ্যান্টি অক্সিডান্ট।

২.শরীরের বিভিন্ন রোগপ্রতিরোধের জন্য অ্যান্টি অক্সিডান্ট যুক্ত খাবার ও জল সুফলদায়ী।

৩. মানবদেহে তামার পরিমাণ সঠিক মাত্রায় থাকলে শরীরে রক্তের ঘাটতি হয়না।

৪.পেটের রোগের সমস্যার সমাধান করতে সাহায্য করে তামা।

৫.যাঁরা কোষ্ঠকাঠিন্য বা অম্বলের সমস্যা আছে, তাঁদের জন্য তামার পাত্রের পানি ভাল ফল দেয়, হজমের সমস্যাও দূর হয়।

৬.তামায় জীবাণুরোধী গুণ থাকায় বিভিন্ন রোগ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া থেকে দূরে রাখে।

৭. শরীরে যদি জন্ডিস হয়ে থাকে বা ডায়রিয়ার জীবাণু থেকে থাকে তবে তাও ধ্বংস হয়ে যায় তামার প্রভাবে।

৮.লিভারের সমস্যা থেকেও মানুষকে দূরে রাখে তামা।

৯.গ্যাস্ট্রিক আলসার যাঁদের আছে তাঁরা নিয়মিত তামার পাত্রে রাখা জল পান করলে উপকার পাবেন। সতর্কতাঃতামার গ্লাস বা জারে টক জাতীয় পানীয় রাখা উচিত নয়। টক এড়িয়ে শুধুমাত্র সাদা পানি রেখে খান। খাঁটি তামার পাত্র চেনার উপায়ঃ- তামার জারে পানি রাখার পর যদি সেই পানি কাচের গ্লাসে ঢেলে দেখেন যে পানির রং ঘোলাটে হয়ে গেছে বা পানির রং পরিবর্তন হয়েছে তবে ওই পানি কিন্তু পানের জন্য একদমই নিরাপদ নয়। অবিলম্বে তামার পাত্রটি পরিবর্তন করে শুদ্ধ তামার পাত্র কেনা উচিৎ। কারণ তামার গ্লাসে বা বোতলে যদি শুদ্ধ পানি রাখেন সেই পানি দীর্ঘসময়ের পরও একইরকম স্বচ্ছ থাকবে।

কাসা, পিতল ও তামার পার্থক্য

আসুন কেনার আগে জেনে নেওয়া যাক পিতল,কাসা এবং তামা সম্পর্কে______

পিতলঃ তামা ও দস্তার মিশ্রণে তৈরী সংকর ধাতু। পিতলে তামা ও দস্তার পরিমাণে তারতম্য ঘটতে পারে এবং এর ফলে বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের বিভিন্ন ধরনের পিতল তৈরি সম্ভব।

চীনে খ্রীষ্টপূর্ব ৫০০ অব্দ পূর্বেও পিতলের ব্যবহার দেখা যায়। কাঁসাঃ হচ্ছে রাং বা টিন (Tin) এবং তামা (Copper) এর সংমিশ্রণে তৈরী একটি মিশ্র ধাতু। অনেকেই ধারণা করে থাকেন যে কাঁসা আর পিতল হচ্ছে একই জিনিস।কিন্তু পিতল হচ্ছে দস্তা (Zinc) এবং তামা (Copper) এর সংমিশ্রণে তৈরী একটি মিশ্র ধাতু।কাজেই কাঁসা আর পিতল একই জিনিস নই।এটি একটি মিশ্র ধাতু। তামাঃ ইংরাজি নাম কপার (Copper) একটি রাসায়নিক মৌল যার চিহ্ন Cu এসেছে ল্যাটিন শব্দ কিউপ্রাম (cuprum) থেকে এবং এর পারমাণবিক ক্রমাঙ্ক ২৯। তামা একটি নমনীয় ধাতু এবং এর তাপীয় ও বৈদ্যুতিক পরিবাহীতা খুব উঁচু দরের তাই অনেক বিজলিবাহী তারের মধ্যেই তামার তার থাকে ।

বিশুদ্ধ তামা খুব বেশি নরম ও নিজস্ব উজ্জ্বল বর্ণ সমন্বিত কিন্তু আবহাওয়ার সংস্পর্শে এর বাইরে একটি লালচে-কমলা বিবর্ণ স্তর তৈরী হয়। তামা ও তামার বহু মিশ্র ধাতু (যেমন ব্রোঞ্জ, পিতল ইত্যাদি) অনেক হাজার বছর ধরে মানুষের নিত্য সঙ্গী । প্রাচীনকালে তামার অনেক খনির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। তার মধ্যে সাইপ্রাস (লাতিনে Cyprus ক্যুপ্রুস্‌) দ্বীপের খনিগুলো সবচেয়ে তাৎপর্যময়। অনেকের মতে তামার ইংরেজি নাম কপার (লাতিন নাম Cuprum কুপ্রুম) শব্দটি এখান থেকেই এসেছে। কাঁসার/পিতল এবং তামার তৈরী বিভিন্ন পণ্যের ব্যবহার______

বাংলাদেশ এবং ভারতে বিভিন্ন ধরনের অলংকারাদি এবং গৃহস্থালির উপকরণ তৈরীতে কাঁসা এবং পিতল ব্যবহার করা হয়ে থাকে । এই ধরনের ধাতুর তৈরী ব্যবহার্য জিনিস-পত্র দ্বারা পারিবারিক ঐতিহ্য (বনেদী-ভাবধারা) প্রকাশ পেয়ে থাকে । বর্তমান যুগে যেমন কোনো পরিবারে স্টেইনলেস স্টীলের জিনিস দ্বারা পরিবারের স্বচ্ছলতাকে নির্দেশ করে।তেমনি আগেরকার যুগে ধনী পরিবারগুলোর কাঁসা,তামা এবং পিতলের ব্যবহার দ্বারা ঐ সকল পরিবারগুলোর আভিজাত্য প্রকাশ পেয়ে থাকত । শুধু তাই নয়, এখনও অনেক ধনী পরিবার রান্না-বান্নার কাজে কাঁসা কিংবা, পিতল ব্যবহার করে থাকে। এছাড়াও ফুলদানী, টেবিল-ল্যাম্প, কিংবা, ঝাঁড়বাতি, ইত্যাদি ক্রয় এবং ব্যবহার করে থাকেন ।

খুব সহজেই দু-তিনটি উপকরণের সহায়তায় পরিষ্কার করে ফেলতে পারবেন পিতল,কাঁসা,তামা ও রুপা পিতল বাসন মাজার ফোম নিন। ফোমের ওপর লবণ আর লেবুর রস ছিটিয়ে দিন। এবার এটি দিয়ে ভালোভাবে পিতলের বিভিন্ন জিনিস ঘষে নিন। প্রয়োজন মনে করলে পুনরায় লেবুর রস আর লবণ দিয়ে নিন। কালচে ভাব অনেকটাই চলে যাবে। সবশেষে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কাঁসা খুব পুরোনো কাঁসার জিনিস হলে ডিটারজেন্ট দিয়ে আলতো করে ধুয়ে শুকিয়ে নিন।

তুলনামূলক নতুন ও অমসৃণ উপরিভাগ হলে নরম ব্রাশে ডিশ সোপ নিয়ে ঘষুন। চকচকে ভাব চাইলে পিতল মেটাল পলিশ দিয়ে ঘষে নিতে পারেন। তামা বাজারে পাওয়া সাধারণ টমেটো সস আর লবণ দিয়েই তামার বিভিন্ন জিনিস পরিষ্কার করে ফেলা সম্ভব। পরিষ্কার কাপড়ের ওপর টমেটো সস আর লবণ একসঙ্গে নিয়ে তামার জিনিস ঘষুন। একটু সময় নিয়েই কাজটা করতে হবে। রুপা একটি পাত্রে পানির সঙ্গে বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। পানির দ্বিগুণ বা তিন গুণ পরিমাণ সোডা দিন। মিশ্রণটি মেশানোর পর যেন গঠনটা শক্ত থাকে। এবার কাপড়ে মিশ্রণ নিয়ে রুপার জিনিসের ওপর ভালোভাবে ঘষুন। কালচে দাগ দূর হয়ে চকচক করবে। সূত্র: গুগল এবং হাউস বিউটিফুল ম্যাগাজিন।

New home decor from John Doerson

Ullamcorper condimentum erat pretium velit at ut a nunc id a adeu vestibulum nibh urna nam consequat erat molestie lacinia rhoncus. Nisi a diamida himenaeos condimentum laoreet pera neque habitant leo feugiat viverra nisl sagittis a curabitur parturient nisi adipiscing. A parturient dapibus pulvinar arcu a suspendisse sagittis mus mollis at a nec placerat sociosqu himenaeos litora fames habitant suscipit tempus scelerisque ridiculus mi ullamcorper per ridiculus proin condimentum.

Continue reading

The big design: Wall likes pictures

Parturient in potenti id rutrum duis torquent parturient sceler isque sit vestibulum a posuere scelerisque viverra urna. Egestas tristique vestibulum vestibulum ante vulputate penati bus a nibh dis parturient cum a adipiscing nam condimentum quisque enim fames risus eget. Consectetur duis tempus massa elit himenaeos duis iaculis parturient nam tempor neque nisl parturient vivamus primis sociosqu ac donec nisi a adipiscing senectus.

Continue reading

Sweet seat: functional seat for IT folks

A sed a risusat luctus esta anibh rhoncus hendrerit blandit nam rutrum sitmiad hac. Cras a vestibulum a varius adipiscing ut dignissim ullamcorper libero fermentum dis aliquet tellus mollis et tristique sodales. Suspendisse vel mi etiam ullamcorper parturient varius parturient eu eget pulvinar odio dapibus nisl ut luctus suscipit per vel aptent fames venenatis leo ac ullamcorper integer mus condimentum rutrum.

Continue reading